চিকিৎসা নিতে নিজেই হাসপাতালে ছুটে গেল আহত বানরটি


বানর বন্যপ্রাণী হলেও তার বুদ্ধিমত্তা অবাক করার মতো। বানরের নানাবিধ কর্মকাণ্ড তাই মাঝে মাঝেই তাই সংবাদে উঠে আসে। বানরের মস্তিষ্ক একেবারে মানুষের মতো না হলেও বেশ উন্নত। তাই কোন্ সময় কী করা উচিত, তা এরা মোটামুটি ভালো করেই জানে।

এবার তেমনই একটি ঘটনা ঘটলো ভারতের কর্ণাটক রাজ্যের ডান্ডেলিতে। সেখানকার আহত হওয়া একটি বানর নিজে নিজেই চিকিৎসা নিতে চলে গেলো একটি হাসপাতালে।

সেই ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভিডিওতে দেখা গেছে, হাসপাতালের দরজায় বসে আছে একটি বানর। বাইরে রোগীদের লম্বা লাইন। বানরটিও অন্যদের মতো লাইন দিয়েছে হাসপাতালের আউটডোরে।

কিছুক্ষণ পর হাসপাতালের এক কর্মী এসে বানরটির গায়ে হাত দেন। হাসপাতালের কর্মী দেখেন, বানরটি আহত। চিকিৎসার জন্যই হাসপাতালে এসেছে। তাই দেরী না করে তিনি বানরটিকে হাসপাতালের ভেতরে নিয়ে যান। সেখানে ক্ষতগুলো পরিষ্কার করে প্রয়োজন মতো ওষুধ দেন। এরপর হাসপাতাল থেকে চলে যায় বানরটি। কারো কোনো ক্ষতি করেনি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি। নেটিজেনরা আহত বানরের চিকিৎসা করার জন্য হাসপাতালের কর্মীদের প্রশংসা করেছেন।


আজব খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

পরবর্তী পোস্ট

করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনে ব্যবহার করা হচ্ছে কাঁকড়ার নীল রক্ত, কিন্তু কেনো?

সোম জুলা ২৭ , ২০২০
মহামারি করোনায় ভুগছে গোটা বিশ্ব। এই ভাইরাসের এখন পর্যন্ত কার্যকরী কোনো টিকা বা ভ্যাকসিন আবিস্কৃত হয়নি। বর্তমানে পুরো বিশ্বের এই মুহূর্তে দরকার করোনা টিকা। এটি পাওয়া গেলে সবার জন্যই একটা বিরাট সুসংবাদ। এরই মাঝে ভ্যাকসিনের জন্য কাঁকড়ার নীল রক্ত প্রয়োজন হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু কেনো? এ বিষয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়েছে, করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার করতে এই ধরনের কাঁকড়ার চাহিদা বেড়ে যাবে বহুগুণ। ন্যাশনাল জিওগ্রাফির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনার ভ্যাকসিন তৈরির মূল চাবিকাঠি কাঁকড়ার নীল […]