৮০ বছর ধরে চুল কাটেননি তিনি (ভিডিও)


যেখানে আমরা একমাসও চুল না কেটে থাকতে পারি না, একবার ভাবুন তো, সেখানে কি ৮০ বছর ধরে চুল না কেটে থাকা যায়? এই প্রশ্নে বিস্মিত না হয়ে উপায় নেই। কিন্তু এমন ঘটনাই ঘটিয়েছেন ভিয়েতনামের ৯২ বছর বয়েসী এনগুইন ভ্যান চিয়েন। গত ৮০ বছর চুল কাটানো তো দূরের কথা চুলে চিরুনিও স্পর্শ করেননি তিনি।

সংবাদমাধ্যম রয়টার্স এর এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে। সংবাদমাধ্যমটি জানায়, ভিয়েতনামের দক্ষিণ মেকোং ডেল্টা অঞ্চলে বাস করেন চিয়েন। হো চি মিন সিটি থেকে এর দূরত্ব ৮০ কিলোমিটার। ১২ বছর বয়স থেকে চুল কাটান না চিয়েন। বাড়তে বাড়তে এখন তার চুলের দৈর্ঘ্য ১৬ ফুট।

এনগুইন ভ্যান চিয়েন বলেন, ‘আমার বিশ্বাস, যদি চুল কেটে ফেলি তবে মরে যাবো। চুলের কোনো পরিবর্তন কিংবা চিরুনি ছোঁয়াতেও সাহস করি না। আমি কেবল চুল লালন-পালন করি। শুকনা ও ধুলোমুক্ত রাখার জন্য চুলগুলো ঢেকে রাখি।’

জীবনের ৮০ বছর চুল না কেটে থাকার বিষয়ে চিয়েন বলেন, ‘এক সময় আমার চুল মসৃণ ছিল। আমি নিয়মিত চিরুনি ব্যবহার করতাম। কিন্তু যখন ঐশ্বরিক বাণীতে জানতে পারি আমাকে বেছে নেওয়া হয়েছে ঈশ্বরের পথে চালিত হতে, তাৎক্ষণিকভাবে চুল স্পর্শ করে দেখি আমার চুল শক্ত হয়ে গিয়েছে।’

সাতটি শক্তি ও নয় দেবতার উপাসনা করেন এনগুইন ভ্যান চিয়েন। তার ধর্মমতে, মানুষ যা নিয়ে জন্ম নেয়, তাই নিয়ে থাকতে হয়। তিনি বিশ্বাস করেন, চুল ও মৃত্যুর সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে।

চিয়েনের পাঁচ পুত্র। এক পুত্রের নাম লুম। চুল রক্ষণাবেক্ষণের ক্ষেত্রে বাবাকে সাহায্য করেন লুম।


আজব খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

পরবর্তী পোস্ট

‘ধূমপান মুক্ত স্বামী’ চেয়ে মানববন্ধন করলেন নারীরা

রবি আগ ৩০ , ২০২০
‘ধূমপান মুক্ত বাংলাদেশ চাই সোসাইটি’র পক্ষ থেকে এক ব্যতিক্রমী মানববন্ধন পালিত হয়েছে। রাজধানীর বাড্ডায় এলাকায় এ মানববন্ধন হয়। ‘ধূমপান মুক্ত স্বামী চাই’ স্লোগানে মানববন্ধনে অংশ নেয় শতাধিক নারী। তাদের প্রত্যাশা, ২০৪০ সালের মধ্যে প্রতিজন নারী যেন ধূমপান মুক্ত স্বামী পান। বাড্ডা প্রধান সড়কে গতকাল শনিবার (২৯ আগস্ট ২০২০) এ মানববন্ধনের আয়োজন করেন পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. শফিকুল ইসলাম। মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীদের দাবি, সংসারের কর্তা ব্যক্তি হলেন স্বামী। ধূমপান করার ফলে তারা নানা রকমের অসুস্থতায় পড়ে যান। একইসঙ্গে আর্থিকভাবেও ক্ষতিগ্রস্ত হন তারা। […]