বৌভাতের খাবারে মাংস কম দেওয়া নিয়ে সংঘর্ষ, বরের চাচা নিহত


বরিশালের বাবুগঞ্জে বৌভাতের অনুষ্ঠানে খাবারে মাংস কম দেওয়া নিয়ে দুইপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে মো. আজহার মীর (৬৫) নামে বরের চাচা ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও সাতজন আহত হয়েছেন।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের দক্ষিণ রফিয়াদি গ্রামে মীর বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তরা।

ঘটনার পরপরই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত আজাহার মীর (৬৫) একই এলাকার মৌজে আলী মীরের ছেলে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের বিমান বন্দর থানার ওসি জাহিদ বিন আলম সংবাদমাধ্যমকে জানান, দক্ষিণ রফিয়াদি গ্রামের মোতাহার মীরের ছেলে সজীব মীর দুইদিন আগে বরিশাল নগরীর কাউনিয়া সাবান ফ্যাক্টরি এলাকার আবুল কালাম হাওলাদারের মেয়ে রুনা বেগমকে বিয়ে করেন।

ওইদিন বরযাত্রা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে রুনা বেগমকে বাবার বাড়ি থেকে শ্বশুর বাড়ি রাফিয়াদী নেওয়া হয়। মঙ্গলবার (০৫ জানুয়ারি) বরের বাড়িতে বৌভাত অনুষ্ঠানে কনে পক্ষের ৪৮ জন অতিথি অংশগ্রহণ করে। খাবারের এক পর্যায়ে মাংস কম দেওয়াকে কেন্দ্র কনে পক্ষের অতিথিদের সাথে বর পক্ষের লোকজনের বাদানুবাদ এবং এক পর্যায়ে হাতাহাতি ও সংঘর্ষ হয়। দুই পক্ষের হামলা-সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে আঘাত লেগে বরের চাচা আজহার মীর ঘটনাস্থলেই নিহত হযন।

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কনে পক্ষের ১২ জনকে আটক করা হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান ওসি জাহিদ-বিন আলম।

ওসি জাহিদ বিন আলম আরও বলেন, ‘নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত লিখিত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে হামলা ও সংঘর্ষের সাথে জড়িতদের চিহিৃত এবং গ্রেপ্তরে পুলিশ কাজ করছে।’


আজব খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

পরবর্তী পোস্ট

অনলাইনে গরু বিষয়ক পরীক্ষা নেবে ভারত

বৃহঃ জানু ৭ , ২০২১
জাতীয় গো-কল্যাণ কর্মসূচিকে শক্তিশালী করতে অনলাইনে সারা দেশব্যাপী গরু বিষয়ক পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি প্রথমবারের মতো এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে দেশটির সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে। পরীক্ষার আয়োজক সংস্থা ‘রাষ্ট্রীয় কামধেনু আয়োগ’। ভারতের কেন্দ্রীয় মৎস্যচাষ, পশুপালন এবং দুগ্ধ উৎপাদন মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সংস্থা হিসেবে কাজ করে এই সংগঠনটি। তাদের আয়োজিত পরীক্ষার নাম দেওয়া হয়েছে ‘কামধেনু গো বিজ্ঞান প্রচার-প্রসার পরীক্ষা’। আয়োজক সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, গরুর বিষয়ে সংবেদনশীল এবং শিক্ষিত করার জন্য এই পরীক্ষা নেওয়া হবে। পরীক্ষায় […]